Home / দেশের খবর / ভূমি তথ্য ব্যাংক উদ্বোধন আজ

ভূমি তথ্য ব্যাংক উদ্বোধন আজ

শেরপুর ডেস্কঃ পদ্ধতিগত পরিবর্তনের মাধ্যমে দেশব্যাপী ভূমি ব্যবস্থাপনা ঢেলে সাজানো হচ্ছে। এ লক্ষ্যে আজ বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভূমি তথ্য ব্যাংক, অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধ, উপজেলা ও ইউনিয়ন ভূমি অফিস এবং ভূমি ভবনের কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন।

২০১৯ সালে ডিসি সম্মেলনে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকল জেলা প্রশাসকদের উদ্দেশে বলেন, ভূমি সংক্রান্ত বিষয়ে জনগণের হয়রানি রোধে ভূমি ব্যবস্থাপনাকে ডিজিটালাইজড করতে হবে। এ লক্ষ্যে সকলকে উদ্ভাবনী চিন্তা দিয়ে জনগণের সেবা করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রীর এই নির্দেশকে ধারণ করে খুলনার জেলাপ্রশাসক নিজস্ব উদ্ভাবনী চিন্তার আলোকে টেকসই ডিজিটাল ভূমি তথ্য ব্যাংক তৈরি করেন। এতে একটি এ্যাপসের মাধ্যমে খুলনা জেলার সরকারী সকল সম্পত্তির হিসাবের ম্যাপ রাখা আছে। অর্পিত সম্পত্তি, পরিত্যক্ত সম্পত্তি, হাটবাজার, খাসজমি ও জনমহলের ছবিসহ বর্তমান অবস্থার তথ্য, এস এ খতিয়ান, আর এস খতিয়ান সম্বলিত তথ্য সন্নিবেশিত আছে। এতে সহজেই বোঝা যাবে কোথায় সরকারের খাস জমি, কোথায় জলাশয় আছে। কোন ভূমি দস্যু সরকারের খাস জমি দখল বা সরকারী জলাশয় ভরাট করে দখল করে পার পাবে না।

২০২০ সালের জানুয়ারি মাসে খুলনায় এটি উদ্বোধন করেন ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী। খুলনা জেলা প্রশাসকের উদ্যোগে তৈরি করা দেশের প্রথম টেকসই ডিজিটাল ভূমি তথ্য ব্যাংক উদ্বোধন উপলক্ষে খুলনা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ভূমিমন্ত্রী বলেন, আমরা জনগণকে সেবা দিতে এসেছি, এটা মুখে নয় কাজের মাধ্যমে প্রমাণ করতে হবে। এজন্য ভূমি অফিসে না এসেও যেন ভূমি সংক্রান্ত সকল সেবা মানুষ ঘরে বসে পেতে পারে তার জন্য সম্পূর্ণ ডিজিটাইজেশনের দিকে আমরা ধীরে ধীরে এগিয়ে যাচ্ছি। টেকসই ডিজিটাল ভূমি তথ্য ব্যাংক সেই উদ্যোগকে ত্বরান্বিত করবে। এর মাধ্যমে সরকারী সম্পত্তি ব্যবস্থাপনা যেমন সহজ হবে তেমনি জনগণও হয়রানিমুক্ত ভূমি সেবা পাবে। তিনি খুলনা জেলা প্রশাসনের এই উদ্যোগকে আরও উন্নত করে সারাদেশে বাস্তবায়ন করার ঘোষণা দেন।

ডিজিটাল ভূমি তথ্য ব্যাংক সম্পর্কে সেখানে খুলনার সাবেক জেলা প্রশাসককে ভূমি মন্ত্রী বলেন, এমনই তো চাই। আমরা জনগণের সেবা করতে এসেছি। তিনি বলেন, এটি একটি মহতী উদোগে। এটিকে সারাদেশে বাস্তবায়ন করব। তারই ধারাবাহিকতায় খুলনাকে ‘মডেল’ হিসেবে নিয়ে ভূমি মন্ত্রীর উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রী আজ এটি উদ্বোধন করতে যাচ্ছে।

উল্লেখ্য, টেকসই ডিজিটাল ভূমি তথ্য ব্যাংক তৈরির কাজ ২০১৯ সালের ১ অক্টোবর শুরু হয়। এই তথ্য ব্যাংকে খুলনা জেলার সকল অর্পিত সম্পত্তি, পরিত্যক্ত সম্পত্তি, হাটবাজার, খাসজমি ও জনমহলের ছবিসহ বর্তমান অবস্থার তথ্য, এস এ খতিয়ান, আর এস খতিয়ান সম্বলিত তথ্য সন্নিবেশিত আছে। ফলে রাজস্ব আদায় নিশ্চিতকরণের পাশাপাশি সরকারী সম্পত্তি দখলমুক্ত রাখা এবং ভূমি ও সায়রাত ব্যবস্থাপনায় আমূল পরিবর্তন এসেছে। যে কেউ ঠিকানায় প্রবেশ করে খুলনা জেলার সকল সরকারী সম্পত্তির বিস্তারিত জানতে পারবেন।

অনলাইন ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধ ॥ ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে ভূমি মন্ত্রণালয় ডিজিটাল ভূমি সেবা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বেশকিছু কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে। এর মধ্যে ‘ভূমি উন্নয়ন কর’ সিস্টেম অন্যতম। বর্তমানে সমগ্র বাংলাদেশের ৪৯১টি উপজেলায় ৪ কোটি হোল্ডিং-এর অনলাইন নাগরিক নিবন্ধনসহ হোল্ডিং এন্ট্রির কাজ চলমান আছে। ইতোমধ্যে সমগ্র বাংলাদেশে সর্বমোট ৭৬,০০,৪২৬টি হোল্ডিংয়ের ডাটা এন্ট্রির কাজ সম্পন্ন হয়েছে এবং বাকি হোল্ডিং এন্ট্রির কাজ চলমান রয়েছে। অনলাইন ভূমি উন্নয়ন কর প্রদানের জন্য প্রত্যেক নাগরিক শনাক্তকরণসহ নাগরিকের জাতীয় পরিচয়পত্র ও পাসপোর্ট নম্বর ব্যবহৃত হচ্ছে। যে সকল প্রবাসী নাগরিকের বাংলাদেশের জাতীয় পরিচয়পত্র নেই কিন্তু পাসপোর্ট নম্বর বিদ্যমান তাদের উক্ত ভূমি উন্নয়ন কর সিস্টেমে পাসপোর্ট নম্বর দিয়ে নিবন্ধন সম্পন্ন করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। অনলাইনে সংগৃহীত ভূমি উন্নয়ন কর চালানের মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে সরকারী কোষাগারে জমা হবে।

অনলাইন ভূমি উন্নয়ন কর সিস্টেমে কোন নাগরিক যেকোন সময়ে যে কোন স্থান থেকে পোর্টাল, মোবাইল এ্যাপের মাধ্যমে ভূমি উন্নয়ন কর সংক্রান্ত তথ্যপ্রাপ্তি এবং ভূমি উন্নয়ন কর অনলাইনে প্রদান, অনলাইন পেমেন্টসহ অনলাইনে দাখিলা পাওয়ার সুযোগ পাবেন। নাগরিকের যাতায়াত, সময় ও খরচ সাশ্রয় হবে। মোবাইল মেসেজ/ই-মেইলের মাধ্যমে হোল্ডিং মালিককে ভূমি উন্নয়ন কর সংক্রান্ত তথ্য অবগত করা হবে। ইউনিয়ন/পৌরভূমি অফিসের মাধ্যমে সকল মৌজাভিত্তিক তথ্য সংরক্ষণ করবে।

ইউনিয়ন ভূমিসহকারী কর্মকর্তা সঠিক দাবি নির্ধারণ পূর্বক ভূমিউন্নয়ন কর আদায় করবেন। চলতি বছরের সর্বমোট দাবি আদায় ও বকেয়ার তথ্যসহ জেজানা স্বয়ংক্রিয়ভাবে দাখিলা ও বিভিন্ন ধরনের লেজার তৈরি হবে।

সুত্রঃ দৈনিক জনকন্ঠ

Check Also

নতুন বছরে ক্লাস বাড়ানোর পরিকল্পনা স্থগিত

শেরপুর ডেস্কঃ শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন ছড়িয়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two + 12 =

Contact Us