সর্বশেষ সংবাদ
Home / বিদেশের খবর / গাজায় আবারও প্রশাসনে ফিরছে ফিলিস্তিনি গোষ্ঠী

গাজায় আবারও প্রশাসনে ফিরছে ফিলিস্তিনি গোষ্ঠী

শেরপুর নিউজ ডেস্ক: গাজায় এখনো হামলা অব্যাহত রেখেছে ইসরায়েলি সেনারা। তবে বেশকিছু এলাকা থেকে নিজেদের সেনাদের ফিরিয়ে নিয়েছে দেশটি। এসব এলাকায় পুনরায় প্রশাসনে ফিরতে শুরু করেছে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামীদের সংগঠন হামাস। শনিবার (০৩ জানুয়ারি) এপির বরাতে এ খবর জানিয়েছে সিএনবিসি নিউজ।

স্থানীয় চার বাসিন্দা ও হামাসের এক শীর্ষ কর্মকর্তা জানান, হামাস আবার গাজায় সম্প্রতি পুলিশ মোতায়েন শুরু করেছে। সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরও আংশিক বেতন দেওয়া শুরু হয়েছে। ওই এলাকাটি থেকে প্রায় এক মাস আগে ইসরায়েলি সেনাদের প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে।

গত চার মাস ধরে ইসরায়েলি বাহিনীর হামলার কারণে এ উপত্যকা ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। ইসরায়েলের দাবি, হামাসকে তারা পুরোপুরি নির্মূল ও তাদের ক্ষমতা থেকে অপসারণ না করা পর্যন্ত এ হামলা অব্যাহত রাখবে। সম্প্রতি প্রশাসনে ফেরা এলাকাসহ গাজার পশ্চিমাঞ্চল এবং উত্তর পশ্চিমাঞ্চলে ইসরায়েলি বাহিনী আবার হামলা শুরু করেছে।

গাজার চারজন বাসিন্দা এপিকে জানান, সম্প্রতি পুলিশ সদর দপ্তর ও গাজার সবচেয়ে বড় হাসপাতাল আলশিফা হাসপাতালসহ বিভিন্ন সরকারি অফিস এলাকায় সাদা পোশাকসহ ইউনিফর্ম পরিহিত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এসব এলাকায় বেসামরিক লোকজনও অফিসে ফিরতে শুরু করেছেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে হামাসের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, যেসব এলাকা থেকে ইসরায়েলি সেনাদের প্রত্যাহার করা হয়েছে সেখারে তারা আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

তিনি জানান, উত্তরাঞ্চলে পুনরায় বেসামরিক শাসন প্রতিষ্ঠা ও পুলিশের প্রতি দোকান-বাড়িঘরে লুটপাত ঠেকাতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হামাসের নেতারা নির্দেশ দিয়েছেন। ইসরায়েলি বাহিনীর তাণ্ডব থেকে বাঁচতে যেসব মানুষ বাড়িঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ফেলে গেছেন সেগুলোরও নিরাপত্তার কথা বলা হয়েছে।

সাইদ আবদেল বার নামের স্থানীয় এক বাসিন্দা জানান, তার চাচাতো ভাই হামাসের একটি অস্থায়ী কার্যালয় থেকে ২০০ ডলার বেতন পেয়েছেন। পুলিশ ও পৌরসভার কর্মীদের বেতন দেওয়া হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

Check Also

বিরল সূর্যগ্রহণের সাক্ষি হবে তিন দেশ

শেরপুর নিউজ ডেস্ক: ৮ এপ্রিল যুক্তরাষ্ট্রসহ তিন দেশের মানুষ দিনকে রাতের মতো দেখবেন। বিরল এক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

14 − 8 =

Contact Us