Home / বিদেশের খবর / জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে গাজায় যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব পাস

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে গাজায় যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব পাস

শেরপুর নিউজ ডেস্ক: গাজায় ইসরায়েলি হামলা বন্ধ করে অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়ে প্রস্তাব পাস হয়েছে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে। এছাড়া এই প্রস্তাবে ফিলিস্তিনের সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাসের হাতে বন্দীদের অবিলম্বে ও নিঃশর্ত মুক্তিরও আহ্বান জানানো হয়েছে। খবর কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আল-জাজিরার।

সোমবার (২৫ মার্চ) নিরাপত্তা পরিষদের ১৪ সদস্যের ভোটে এই প্রস্তাব পাস হয়। তবে এই প্রস্তাবে ভোট দেয়নি যুক্তরাষ্ট্র।

এদিকে অক্টোবরে যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে যুদ্ধবিরতির প্রস্তাবটি অচলাবস্থায় ছিলো। বারবার যুদ্ধবিরতি আহ্বানের পরও সম্মত হতে ব্যর্থ হয়েছিল তারা।

গাজায় ইসরায়েলের আক্রমণ নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এই পদক্ষেপ তার এবং তার মিত্র ইসরায়েলের মধ্যে ক্রমবর্ধমান মতবিরোধেরই ইঙ্গিত দেয়।

অক্টোবরে যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে নিরাপত্তা পরিষদ অচলাবস্থায় ছিল, যুদ্ধবিরতির আহ্বানে সম্মত হতে ব্যর্থ হয়েছিল তারা।

গাজায় ইসরায়েলের আক্রমণ নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এই পদক্ষেপ তার এবং তার মিত্র ইসরায়েলের মধ্যে ক্রমবর্ধমান মতবিরোধের ইঙ্গিত দেয়।

অঞ্চলটির হামাস পরিচালিত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অনুসারে, গাজায় ক্রমবর্ধমান মৃতের সংখ্যা নিয়ে ইসরায়েলের সমালোচনা করেছে ওয়াশিংটন, যেখানে ৩২ হাজার জনেরও বেশি মানুষ – প্রধানত মহিলা এবং শিশু – ইসরায়েলের হামলায় নিহত হয়েছে।

এর আগে, হামাসের কাছে থাকা জিম্মিদের মুক্তির সঙ্গে গাজায় অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়ে একটি খসড়া প্রস্তাব জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে পেশ করেছিলো ওয়াশিংটন। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের করা এই খসড়া প্রস্তাবে ভেটো দিয়েছে রাশিয়া ও চীন।

১৫ সদস্যের নিরাপত্তা পরিষদে ১১টি দেশ পক্ষে ভোট দেয়। স্থায়ী সদস্য রাশিয়া ও চীন এবং রোটেটিং সদস্য আলজেরিয়া এতে বিরোধিতা করে। ভোট দেয়া থেকে বিরত থাকে গায়ানা।

নিরাপত্তা পরিষদের নীতি অনুযায়ী, একজন স্থায়ী সদস্য ভেটো দিলেই প্রস্তাব বাতিল হয়ে যায়। এ ক্ষেত্রে চীন ও রাশিয়ার ভেটো দেয়ার কারণে যুক্তরাষ্ট্রের খসড়া এ প্রস্তাব বাতিল হয়ে যায়।

ভেটো দেয়ার পর এ নিয়ে কথা বলেছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত রাশিয়ার দূত ভাসিলি নেবাঞ্জা। তিনি বলেন, এই প্রস্তাব হলো যুক্তরাষ্ট্রের একটি ভণ্ডামি। যেখানে গাজায় প্রথমদিকে ইসরায়েলকে থামাতে যুক্তরাষ্ট্র কিছু করেনি। সেখানে তারা এমন সময় যুদ্ধবিরতির কথা বলছে যখন “গাজা কার্যত পৃথিবী থেকে নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে। আমরা এখানে একটি পুরোনো ভণ্ডামির প্রদর্শনী দেখেছি।

তিনি আরো বলেন, খসড়াটিতে অত্যধিক রাজনীতিকরণ করা হয়েছে এবং গাজার রাফা শহরে সামরিক অভিযান চালাতে ইসরায়েলের জন্য একটি সবুজ সংকেত রয়েছে।

দূত ভাসিলি নেবাঞ্জা বলেন, প্রস্তাবে যুদ্ধবিরতির কোনো আহ্বান নেই। মার্কিন নেতৃত্ব ইচ্ছেকৃতভাবে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে বিভ্রান্ত করছে।

চীনের দূত ঝাং জুন বলেন, মার্কিন খসড়ায় যুদ্ধবিরতির বিষয়টি কৌশলে পরিহার করা হয়েছে, পাশাপাশি অস্পষ্ট রাখা হয়েছে। অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির আহ্বান এড়িয়ে যাওয়া হয়েছে।

Check Also

এবার লেবানন থেকে ইসরায়েলে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা

শেরপুর নিউজ ডেস্ক: এবার লেবানন থেকে ইসরায়েলে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়েছে। আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × 3 =

Contact Us