সর্বশেষ সংবাদ
Home / বগুড়ার খবর / জেলার খবর / বগুড়ার আবাসিক হোটেল যেন মিনি পতিতালয়!

বগুড়ার আবাসিক হোটেল যেন মিনি পতিতালয়!

শেরপুর ডেস্কঃ বগুড়ায় আবাসিক হোটেল গুলোর অন্তরালে চলছে রমরমা দেহ ব্যবসা। শুধুমাত্র বগুড়া শহরেই প্রায় শতাধিক এর বেশি আবাসিক হোটেল রয়েছে এবং তার ভেতর অধিকাংশ হোটেলেই চলে রমরমা দেহব্যবসা। বলা যায় এসব হোটেলগুলো যেন অঘোষিত মিনি পতিতালয়। ৯৯.৯৯% নারীদের এখানে বিভিন্ন কৌশলে ফাঁদে ফেলে দেহব্যবসায় বাধ্য করা হয়।

এ ব্যবসার প্রাদুভার্ব এতটাই বেড়েছে যে জরুরি সেবা ৯৯৯ ফোন কলের মাধ্যমে মাঝে মাঝেই বিভিন্ন হোটেল থেকে শতাধিক যুবক যুবতীদের আটক করে জরিমানা করা হয়।
সরেজমিনে ঘুরে যে সমস্ত এলাকার নাম পাওয়া গেছে তার ভেতর চারমাথা, মাটিডালি, কলোনি, বনানী, ফুলতলা, রাজা বাজার, নবাব বাড়ি রোড, বারোপুর, ঝোপগাড়ি, নিশিন্দারা ইত্যাদি বিখ্যাত। হোটেলগুলোতে অবাধ চলেছে মদ, জুয়া ও ডিজে পার্টির অশ্লীল নৃত্য। নাম ধাম বিহীন আবাসিকের নীচে গোডাউনে রাখা হয় কলগার্লদের। বিভিন্ন সময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অভিযান চালিয়ে হাতে-নাতে খদ্দেরসহ এদের গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

এছাড়াও ভ্র্যম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে আবাসিকের মালিক ও ম্যানেজার, কলর্গাল-খদ্দের জারিমানা করলেও থেমে নাই দেহ ব্যবসা।
মাটিডালি এলাকার বারোপুর এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা সাংবাদিকদের জানান, মহাসড়কের পাশ দিয়ে যেসব আবাসিক হোটেল রয়েছে। সেসব হোটেলগুলো মূল কাজ দেহ ব্যবসা। এ অবস্থায় অনেক যুবক যুবতী নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এসব কাজের কথা শুনে কোন ভদ্র মানুষ স্বাভাবিক ভাবে বসবাস ও চলাচল করতে পারছে না।

বগুড়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম রেজা সাংবাদিকদের জানান, যখন আমরা এমন ব্যবসার সংবাদ পাচ্ছি সেখানে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হচ্ছে। গত দুই সপ্তাহে ৩/৪টি হোটেল থেকে শতাধিক যুবত যুবতী আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জেল জরিমানা করা হয়েছে। এসব হোটেলে অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Check Also

বগুড়ায় শেখ কামালের জন্মবার্ষিকী উদযাপিত

শেরপুর ডেস্কঃ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর জ্যেষ্ঠ পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

five × three =

Contact Us