সর্বশেষ সংবাদ
Home / দেশের খবর / যেভাবে চলবে গণপরিবহন

যেভাবে চলবে গণপরিবহন

শেরপুর ডেস্কঃ কঠোর বিধিনিষেধ শিথিল হওয়ায় আগামী বুধবার (১১ আগস্ট) থেকে সারাদেশে গণপরিবহন চলাচল শুরু হবে। তবে গণপরিবহনে কোনো যাত্রী দাঁড়িয়ে নেওয়া যাবে না বলে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (১০ আগস্ট) বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) থেকে গণপরিবহন চলাচলের বিষয়ে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে যেসব নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে সেগুলো হলো-
১. আসন সংখ্যার অতিরিক্ত কোনো যাত্রী পরিবহন করা যাবে না এবং দাঁড়িয়ে কোনো যাত্রী বহন করা যাবে না। সড়ক পথে গণপরিবহন চলাচলের ক্ষেত্রে স্থানীয় প্রশাসন (সিটি করপোরেশন এলাকায় বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা পর্যায়ে জেলা প্রশাসক) নিজ নিজ অধিক্ষেত্রের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী, সংশ্লিষ্ট দপ্তর/ সংস্থা, মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের সঙ্গে আলোচনা করে প্রতিদিন মোট পরিবহন সংখ্যার অর্ধেক চালু করতে পারবে।

২. পূর্বের ভাড়ায় (৬০ শতাংশ বর্ধিত ভাড়া প্রযোজ্য হবে না) গণপরিবহন চলবে। পূর্বের ভাড়ার অতিরিক্ত ভাড়া কোনোভাবেই আদায় করা যাবে না।

৩. গণপরিবহনের যাত্রী, চালক, সুপারভাইজার/কন্ডাক্টর, হেলপার-কাম ক্লিনার এবং টিকিট বিক্রয় কেন্দ্রের দায়িত্বে নিয়োজিত ব্যক্তিদের মাস্ক পরিধান নিশ্চিত করতে হবে এবং তাদের জন্য প্রয়োজনীয় হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা রাখতে হবে।

৪. যাত্রার শুরু ও শেষে যানবাহন পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নসহ জীবাণুনাশক দিয়ে জীবাণুমুক্ত করতে হবে। এছাড়া যাত্রীদের হাতব্যাগ, মালপত্র জীবাণুনাশক ছিটিয়ে জীবাণুমুক্ত করার ব্যবস্থা যানবাহনের মালিকদের করতে হবে।

৫. গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত অন্যান্য প্রয়োজনীয় বিষয়াদি মেনে চলতে হবে। অন্যথায় সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রজ্ঞাপন জারির পর থেকে সড়কে নামতে প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে পরিবহন কোম্পানিগুলো। বিক্রি হচ্ছে অগ্রিম টিকিটও। এ ছাড়া পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজে ব্যস্ত দোকান ও রেস্টুরেন্ট কর্তৃপক্ষ। ঈদুল আজহার পর টানা ১৯ দিন কঠোর লকডাউনের বিধিনিষেধ উঠছে বুধবার থেকে। রোববার (৮ আগস্ট) দেশব্যাপী লকডাউনের শিথিলতার বিষয়ে এক প্রজ্ঞাপন জারি করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। এরপর থেকেই পরিবহন খাতের দীর্ঘ স্থবিরতায় ফিরে প্রাণ-চাঞ্চল্যতা।

প্রস্তুতির অংশ হিসেবে রাজধানীর বাস টার্মিনালগুলো ঘুরে দেখা গেছে, শ্রমিকরা বাস ধোঁয়ামোছার কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে যন্ত্রপাতি। রং করে বাস চলাচলের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। চালক ও হেলপাররা জানান, অনেক দিন ধরে গাড়িগুলো বসে আছে। তাই ইঞ্জিন চালু করে দেখা হচ্ছে ঠিক আছে কি না। এ ছাড়া ময়লা পড়ে যাওয়ায় তা পরিষ্কার করা হচ্ছে। তবে বাস কাউন্টারগুলো এখনও বন্ধ থাকলেও মঙ্গলবার থেকে টিকিট বিক্রি শুরু হবে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

Check Also

পরিবেশ রক্ষা করে উন্নয়ন প্রকল্প নেয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

শেরপুর ডেস্কঃ পরিবেশ ও প্রতিবেশ রক্ষা করে যে কোনো উন্নয়ন প্রকল্প নেয়া ও বাস্তবায়নের নির্দেশ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

three − two =

Contact Us