Home / স্থানীয় খবর / খানপুর / শেরপুরে প্রতিবন্ধী শিশু ধর্ষণ মামলায় গ্রেপ্তার হলেও ব্যবস্থা নেয়নি স্বাস্থ্য বিভাগ

শেরপুরে প্রতিবন্ধী শিশু ধর্ষণ মামলায় গ্রেপ্তার হলেও ব্যবস্থা নেয়নি স্বাস্থ্য বিভাগ

শেরপুর নিউজ২৪ ডট নেট: প্রতিবন্ধী শিশু ধর্ষণের ঘটনায় আপোষের অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়ে ১৭ দিন জেলহাজতে থাকলেও বগুড়ার শেরপুরে কমিউনিটি ক্লিনিকের এক সিএইচসিপি (কমিউনিটি হেলথকেয়ার সার্ভিস প্রোভাইডার) এর বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়নি স্বাস্থ্যবিভাগ। ফলে জনমনে উপজেলা স্বাস্থ্যবিভাগের কার্যক্রম নিয়ে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।
অনুসন্ধানে জানা গেছে, শেরপুর উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের খানপুর দহপাড়া কমিউনিটি ক্লিনিকের সিএইচসিপি মনিরুজ্জামান প্লাবন (৩৫) গত ৬ আগষ্ট রাতে শেরপুর থানা পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হন। তার বিরুদ্ধে প্রতিবন্ধী শিশু ধর্ষণের ঘটনায় আপোষ করার চেষ্টার অভিযোগে থানায় একটি মামলা দায়ের করে পরদিন তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়। দীর্ঘ ১৭ দিন জেলহাজতে থাকার পর ২৩ আগষ্ট মামলায় জামিন নিয়ে বের হয়ে আসেন তিনি। অথচ উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডা. আব্দুল কাদের তার বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা না নিয়ে তাকে ১০দিনের ছুটির অনুমোদন দিয়ে বিষয়টি ধামাচাপার চেষ্টা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এমনকি তার আগষ্ট মাসের পুরো বেতনও গত ২ সেপ্টেম্বর দেয়া হয়েছে।
শেরপুর উপজেলা হাসপাতালের একজন কর্মকর্তা জানান, সরকারি চাকুরীর বিধি বিধান অনুযায়ী কেউ গ্রেপ্তার হলে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করার কথা। এমনকি মামলা চলাকালীন সময় পর্যন্ত তিনি শুধুমাত্র মূলবেতনের অর্ধেক প্রাপ্য হন।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত কমিউনিটি ক্লিনিকের সিএইচসিপি মনিরুজ্জামান প্লাবন জানান, আমি গত ৫ আগষ্ট সিলেট যাবার জন্য দশদিনের ছুটি চেয়েছিলাম। সেটাই কাজে লেগেছে। এখন জামিনে আছি। আমার বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।
শেরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আব্দুল কাদের জানান, তার গ্রেপ্তারের বিষয়টি আমি অফিসিয়ালি জানিনা। সে জেলে ছিল না কি কোথায় ছিল তা আমি জানি না।
এ বিষয়ে বগুড়ার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মোস্তাফিজার রহমান তুহিন জানান, নিয়মানুযায়ী তার সাময়িক বহিস্কার হবার কথা। কিন্তু কেন তা করা হয়নি তা খতিয়ে দেখা হবে।

 

Check Also

শেরপুরে প্রতিবন্ধী শিশুকে ধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দেবার চেষ্টা: তিন মাতব্বর গ্রেপ্তার

শেরপুর নিউজ ২৪ডট নেট: বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় প্রতিবন্ধী শিশুকে ধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দেবার চেষ্টার অভিযোগে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

thirteen − 2 =