সর্বশেষ সংবাদ
Home / বিনোদন / দুই বাংলায় জনপ্রিয় নুসরাত

দুই বাংলায় জনপ্রিয় নুসরাত

সৌন্দর্যের সঙ্গে মেধা ও মননের সমন্বয়ে তিনি ক্রমে নিজেকে ছাড়িয়ে যাওয়ার প্রতিজ্ঞা করেছেন। শুরুটা হয়েছিল এফএম চ্যানেলের রেডিও জকি হিসেবে। তারপর উপস্থাপনা, এপার-ওপার বাংলার চলচ্চিত্রে অভিনয় দিয়ে জয় করেছেন ভক্তদের মন। বলছিলাম অভিনেত্রী নুসরাত ফারিয়ার কথা। যিনি প্রমাণ করেছেন, মেধা থাকলে মানচিত্রের বিভাজন কখনও বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে না। তাই তো পদ্মাপাড়ের মেয়েটি গঙ্গাপাড়েও আজ সমান জনপ্রিয়। অবশ্যই কাজের প্রতি নিষ্ঠা এ অভিনেত্রীকে আজকের অবস্থানে নিয়ে এসেছে। দেশের সীমানা ছাড়িয়ে তাই কলকাতার শীর্ষ নায়কদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে অভিনয় করছেন। অভিনয় প্রতিভা কিংবা ব্যবসার নিরিখে পরিচালক থেকে শুরু করে প্রযোজকরাও তাই তাকে নিয়ে বাজি ধরতে সাহস পান। আগামীকাল কলকাতায় মুক্তি পাচ্ছে তার অভিনীত নতুন ছবি ‘বিবাহ অভিযান’। ছবিতে ওপার বাংলার অঙ্কুশের সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন ফারিয়া। তাই কথোপকথনের শুরুতে এ অভিনেত্রীর কাছে জানতে চাওয়া হয়, ‘বিবাহ অভিযান’ ছবিতে কাজ করার অভিজ্ঞতা কেমন ছিল? তিনি সহাস্য ভঙ্গিতে বলেন, “ছবিতে কাজ করে বেশ তৃপ্ত।

এটি অনেকটা রোমান্টিক-কমেডি ধাঁচের ছবি। কিন্তু ‘বিবাহ অভিযান’ ছবিতে দেখা যাবে নতুন ধাঁচের কমেডি। ছবিটি যেহেতু কিছুটা কমেডি ঘরানার, তাই সব সময় শুটিং সেটে আমরা হৈ-হুল্লোড় করে কাজ করতাম। সত্যি বলতে, এই প্রথম কোনো শুটিং সেটে যাওয়ার জন্য অপেক্ষা করে বসে থাকতাম। প্রতিনিয়ত মনে হতো, কখন শুটিং শুরু হবে। তবে কাজ করতে গিয়ে কিছুটা চ্যালেঞ্জও নিতে হয়েছে। কারণ, কলকাতার পরিচালক বিরসা দাসগুপ্তের পরিচালনায় ছবিতে অঙ্কুশসহ রুদ্রনীল ঘোষ, সায়নী ঘোষ, প্রিয়াঙ্কা সবাই কলকাতার। তাই এখানকার কথা, উচ্চারণ, চলন-বলন রপ্ত করতে হয়েছে।” তবে ফারিয়া যে ওপার বাংলার মানুষের চলন-বলন বেশ ভালোভাবেই রপ্ত করেছেন, তা ট্রেলার দেখলেই বোঝা যায়। যেখানে দেখা গেছে, দুই বন্ধু অঙ্কুশ ও রুদ্রনীল ঘোষ তাদের বিবাহিত জীবন নিয়ে হতাশায় ভোগে। তারা পরিকল্পনা করে, তাদের স্ত্রীদের সঙ্গে আলাদা হওয়ার। কিন্তু নুসরাতকে এ সময় প্রতিবাদী নারীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হতে দেখা যায়। এরই মধ্যে ট্রেলারে নুসরাত ফারিয়ার উপস্থিতি তার ভক্তদের মধ্যে উন্মাদনা তৈরি করেছে।

Check Also

আবার বিয়ে করলেন শখ

ডেস্ক রিপোর্টার: গাজীপুর জেলার কালিয়াকৈর থানার বলিয়াদি গ্রামে শখের শ্বশুরবাড়ি বাড়ি। চলতি বছর ১২ মে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × two =