Home / দেশের খবর / শেখ হাসিনা দেশ বিক্রি করে না: প্রধানমন্ত্রী

শেখ হাসিনা দেশ বিক্রি করে না: প্রধানমন্ত্রী

শেরপুর নিউজ ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ভারতের সঙ্গে যোগাযোগ ব্যবস্থা খুলে দেয়ায় দেশের মানুষই সবচেয়ে বেশি লাভবান হচ্ছে। রেল যেগুলো বন্ধ ছিলো আমরা সেগুলো আস্তে আস্তে খুলে দিচ্ছি। তাতে আমাদের ব্যবসা-বাণিজ্য সহজ হচ্ছে। ওই অঞ্চলের মানুষগুলো উপকৃত হচ্ছে। তাদের উৎপাদিত পণ্য বাজারজাত করার সুযোগ হচ্ছে। যেসব জিনিস আমাদের দেশে হয় না, সেগুলো আনার সুযোগ হচ্ছে। অর্থনীতিতে এটা বিরাট অবদান রেখে যাচ্ছে।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) দুপুরে ভারত সফর নিয়ে গণভবনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। সংবাদ সম্মেলনের শুরুতেই ভারত সফর নিয়ে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন প্রধানমন্ত্রী। এরপর সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন তিনি। সংবাদ সম্মেলন পরিচালনা করেন প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব নাঈমুল ইসলাম খান।

ভারতের সঙ্গে রেল যোগাযোগ চুক্তি ও দেশ বিক্রি করার অভিযোগ নিয়ে করা এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, আমার প্রশ্ন, দেশ বিক্রির ওজনটা কিসে মাপছে? কোনো কিছু বিক্রি হলে অবশ্যই তা ওজন করতে হয়। ওজন মাপা হয় না? তো কিসে মেপে বিক্রি হচ্ছে।‌ বিক্রিটা হয় কিভাবে? তিনি বলেন, বাংলাদেশ স্বাধীন দেশ। মুক্তিযুদ্ধ করে আমরা স্বাধীনতা অর্জন করেছি। যারা এই সমালোচনা করে তাদের জানা উচিত, সারাবিশ্বে একটি মাত্র মিত্র শক্তি যারা মুক্তিযুদ্ধের সময় আমাদের মুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে, নিজেদের রক্ত ঝরিয়ে এই দেশ স্বাধীন করে দিয়েছে। আমাদের সব মুক্তিযোদ্ধারা সেখানে ট্রেনিং পেয়েছে। বিশ্বে যারাই কোনো যুদ্ধে মিত্র শক্তির সহযোগিতা পেয়েছে, তারা কিন্তু সেই দেশ ছেড়ে কোনোদিন ফেরত যায়নি। এখনো জাপানে আমেরিকান সৈন্য, জার্মানিতে রাশিয়ান সৈন্য আছে। এখানে ভারত ব্যাতিক্রম। তারা মিত্র শক্তি হিসেবে আমাদের পাশে যুদ্ধ করে এসেছে। যখনই জাতির পিতা চেয়েছেন ভারত তাদের সৈন্য দেশে ফেরত‌ নিয়ে গেছে। তারা যুদ্ধের সরঞ্জাম সবকিছু নিয়েই এখানে যুদ্ধে এসেছিলো। পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী সারেন্ডার করেছিলো তাদের কাছে। কিন্তু আমরা স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র পেয়েছি। কারণ তারা ভারতীয় সেনাবাহিনী প্রত্যাহার করেছে। এরপরেও যারা কথা বলে যে, ভারতের কাছে বিক্রি হয়ে যাবে,‌ সেই বিক্রিটা হয় কিভাবে? সেটাই তো আমার প্রশ্ন।

শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ স্বাধীন ও সার্বভৌম। যত ছোট হোক, এটা আমাদের সার্বভৌম দেশ। আর সেই সার্বভৌমত্ব রক্ষা ও স্বকীয়তা বজায় রেখেই আমরা বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রেখেই কাজ করছি। আজকে এই যে আমরা সব যোগাযোগ ব্যবস্থা খুলে দিলাম, সব থেকে বেশি লাভবান তো আমাদের দেশের মানুষ। তাদের যোগাযোগ করতে হয়, যেতে হয়, চিকিৎসার জন্য যায়, পড়াশোনার জন্য যায় বা অন্যান্য কাজে যায়, হাটবাজার করতে যায়, আজমির শরীফে যায়, বিভিন্ন জায়গায় যায়। আমাদের ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্ষেত্রটা তো আরো উন্মুক্ত হবে। কাজেই এখানে বিক্রি আমরা করি না। যারা কথা বলে, তারা বেচার জন্য অথবা ‘ইউজ মি’ মানে ব্যবহার করুন আমাকে এই নিয়ে বসেই থাকে। এটা হলো বাস্তবতা। শেখ হাসিনা এই দেশকে বিক্রি করে না। কারণ আমরা এই দেশ স্বাধীন করেছি। এটা তাদের মনে রাখা উচিত। আর যে কষ্টটা আমরা ভোগ করেছি, এটা আমরা জানি। যারা বিক্রির কথা বলে, একাত্তরে তারা পাকিস্তানের দালালি করেছে, আর কী করেছে।

Check Also

সংলাপে রাজি নন আন্দোলনকারীরা

শেরপুর নিউজ ডেস্ক: সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কার ইস্যুতে চলমান আন্দোলনের বর্তমান পরিস্থিতিতে সরকারের সঙ্গে আলোচনায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eighteen − 3 =

Contact Us