Home / বিদেশের খবর / ‘সবার নজর এখন রাফায়’

‘সবার নজর এখন রাফায়’

শেরপুর নিউজ ডেস্ক: বিশাল এলাকাজুড়ে উচ্ছেদ হওয়া ফিলিস্তিনি শরণার্থীদের তাঁবু আর একটি স্লোগান, যাতে লেখা ‘অল আইজ অন রাফা’ বা ‘সবার নজর এখন রাফায়’, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার দ্বারা তৈরি এ ছবিটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এখন হরহামেশাই চোখে পড়ছে। বিবিসি অ্যারাবিক এ ছবির উৎস খুঁজে বের করেছে। ছবিটি মালয়েশিয়া থেকে পোস্ট হওয়ার পর দ্রুতই ৪৪ মিলিয়ন ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারী তা শেয়ার করেছে, যার মধ্যে আছে ভারত, পাকিস্তান ও পুয়ের্তো রিকোর অনেক তারকাও।

এ ছবি ও স্লোগান ভাইরাল হয় যখন দক্ষিণ গাজার শহর রাফাতে বাস্তুচ্যুত ফিলিস্তিনিদের একটা শরণার্থী শিবিরে ইসরায়েলি বিমান হামলা চালানো হয় এবং তাতে আগুন ধরে যায়। এ নিয়ে বিশ্বজুড়ে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। রাফার ক্যাম্পে এই হামলার পরপরই ছবিটি ভাইরাল হয়। তবে এ স্লোগানটি নেওয়া হয় মূলত দখলকৃত ফিলিস্তিনি অঞ্চলে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধি রিচার্ড পিপারকর্নের একটি উক্তি থেকে।

গত ফেব্রুয়ারিতে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘অল আইজ অন রাফা’। তিনি এর মাধ্যমে রাফাতে হামলার পরিকল্পনা করা ইসরায়েলি সেনাবাহিনীকে একটা সতর্কতার বার্তা দেন। এরপর থেকেই এ কথাটা অন্য কর্মকর্তা ও অ্যাক্টিভিস্টরা বারবার ব্যবহার করে আসছিলেন রাফাতে ইসরায়েলি অভিযানের বিরোধিতা করতে ও তাদের উদ্বেগ জানাতে।

এদিকে গাজা যুদ্ধে ইসরায়েল ‘গণহত্যা চালাচ্ছে’– এমন মন্তব্য করে চাকরি খুইয়েছেন নিউইয়র্কের একটি হাসপাতালে কর্মরত একজন ফিলিস্তিন-আমেরিকান মুসলিম নার্স। গর্ভাবস্থা ও প্রসবের সময় সন্তান হারানো শোকার্ত মায়েদের নিয়ে কাজ করেন হাসেন জাবের নামের এই নারী নার্স। সেই কাজের জন্য স্বীকৃতি হিসেবে পুরস্কার গ্রহণ করতে গিয়ে বক্তব্য দিয়েছিলেন তিনি। সেখানেই গাজার ‘গণহত্যা’ নিয়ে কথা বলেন।

অন্যদিকে, ইসরায়েলে অস্ত্র বিক্রির অভিযোগে জার্মানির বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। মানবাধিকার আইনজীবী আলেকজান্ডার শোয়ারৎস বলেছেন, জার্মানির কাছ থেকে পাওয়া অস্ত্র দিয়ে যে ইসরায়েল গাজায় যুদ্ধাপরাধ করছে, তা বিশ্বাস করার ‘যৌক্তিক কারণ’ আছে।

এ ছাড়া ইসরায়েলে অস্ত্র পাঠিয়ে জার্মান সরকার আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করছে বলে বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন শোয়ারৎস।

Check Also

ভারতে ট্রেন দুর্ঘটনায় ৫ জনের মৃত্যু

শেরপুর নিউজ ডেস্কধ ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ট্রেন দুর্ঘটনায় পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় অন্তত ২৫ জন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

thirteen + 1 =

Contact Us