Home / দেশের খবর / প্রশিক্ষণে আসবেন ভুটানের ডাক্তার-নার্স

প্রশিক্ষণে আসবেন ভুটানের ডাক্তার-নার্স

শেরপুর নিউজ ডেস্ক: ঢাকা সফরে থাকা ভুটানের রাজা জিগমে খেসার নামগিয়েল ওয়াংচুক গতকাল দ্বিতীয় দিনে ব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন। তিনি স্বাধীনতা দিবসের ভোরে জাতীয় স্মৃতিসৌধে বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। পরে যান রাজধানীর শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউট পরিদর্শনে। বিকালে বঙ্গভবনে গিয়ে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিনের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে ইফতার ও নৈশভোজ আয়োজনে অংশ নেন। এর আগে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরিবারের সঙ্গে সময় কাটান ভুটানের রাজা ও রানি। রাজার বার্ন ইনস্টিটিউট পরিদর্শনের পর স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন জানিয়েছেন, নতুন সমঝোতা অনুসারে বাংলাদেশে প্রশিক্ষণ নিতে আসবেন ভুটানের ডাক্তার ও নার্সরা। চার দিনের সফরে সোমবার ঢাকায় আসা ভুটানের রাজা ওয়াংচুক এবং এবং রানি জেৎসুন পেমা গতকাল সকালে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে জাতীয় স্মৃতিসৌধে বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। পরে সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধ প্রাঙ্গণে কিছু সময় কাটান তাঁরা। ১৯৮৪ সালে জাতীয় স্মৃতিসৌধ প্রাঙ্গণে ভুটানের তৎকালীন রাজা জিগমে সিংগে ওয়াংচুক লাগিয়েছেন ‘সিলভার ওক’ গাছ। ৪০ বছর পর জিগমে সিংগে ওয়াংচুকের ছেলে ভুটানের বর্তমান রাজা জিগমে খেসার নামগিয়েল ওয়াংচুক এবার বাংলাদেশে এসে সেই গাছ ছুঁয়ে জানালেন শ্রদ্ধা। নিজেও জাতীয় স্মৃতিসৌধ প্রাঙ্গণে একটি ‘নাগেশ্বর-চাঁপা’ গাছের চারা রোপণ করেন। পরে পরিদর্শন বইয়ে স্বাক্ষর করেন। সাভার থেকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউট পরিদর্শন করতে গিয়ে হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ড তিনি ঘুরে ঘুরে দেখেন। প্রধানমন্ত্রীর মেয়ে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার আঞ্চলিক পরিচালক সায়মা ওয়াজেদ, স্বাস্থ্যমন্ত্রী সামন্ত লাল সেন, ভুটানের রাষ্ট্রদূত রিনচেন কুয়েনসিল এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, রাজার সফরের প্রথম দিন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে দুই দেশের মধ্যে তিনটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। এর মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারকের আওতায় ভুটানের থিম্পুতে একটি বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিট করে দেবে বাংলাদেশ। বার্ন ইনস্টিটিউট থেকে রাজা চলে যাওয়ার পর স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, পরিদর্শনের সময় ভুটানের রাজা বাংলাদেশের চিকিৎসকদের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন। বার্ন ইনস্টিটিউটে ভুটানের একজন রোগী চিকিৎসাধীন আছেন, তাকে দেখেও রাজা অত্যন্ত খুশি হয়েছেন। বাংলাদেশ যেন ভুটানে একটি ভালো মানের হাসপাতাল তৈরি করে দেয় ভুটানের রাজা সেই বিষয়ে আগ্রহ দেখিয়েছেন। বাংলাদেশের স্বাস্থ্য বিভাগ সেখানকার চিকিৎসকদেরও প্রশিক্ষণ দেবে। মন্ত্রী বলেন, ভুটানের রাজাকে বলেছি, আমরা তাদের দেশের ডাক্তার-নার্সদের প্রশিক্ষণ দেব। শুধু বার্ন নয়, মেডিসিন, সার্জারি সব সেক্টরেই কাজ করা হবে। ওই হাসপাতাল চালু হওয়ার পর প্রথম দুই বছর যেন আমরা চালাতে পারি সেভাবেই ডাক্তারদের গড়ে তুলব।

সফরসূচি অনুসারে, আজ বুধবার পদ্মা সেতু পরিদর্শনে যাবেন ভুটানের রাজা। এরপর বাংলাদেশ স্পেশাল ইকোনমিক জোন পরিদর্শনে যাবেন নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার সকালে বিমানে করে কুড়িগ্রামে বিশেষায়িত অর্থনৈতিক অঞ্চল পরিদর্শন করতে যাবেন তিনি। কুড়িগ্রামের আনুষ্ঠানিকতা শেষে এদিন বিকালে সোনাহাট স্থলবন্দর দিয়ে বাংলাদেশ ত্যাগ করবেন ভুটানের রাজা ও রানি।

Check Also

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি যুবক নিহত

শেরপুর নিউজ ডেস্ক: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের গুলিতে হাসান (২৬) নামে এক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 + eleven =

Contact Us