সর্বশেষ সংবাদ
Home / আইন কানুন / ঋণখেলাপিরা স্বতন্ত্র পরিচালক হওয়ার অযোগ্য

ঋণখেলাপিরা স্বতন্ত্র পরিচালক হওয়ার অযোগ্য

শেরপুর নিউজ ডেস্ক: আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বাজার বিভাগ স্বতন্ত্র পরিচালকদের অভিজ্ঞতা ও উপযুক্ততা নির্ধারণ করে দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। বাংলাদেশ ব্যাংকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী– এনবিএফআই অর্থাৎ ব্যাংকবহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানে স্বতন্ত্র পরিচালক থাকতে পারবেন দুজন। এই দুজনসহ ১৫ জনের বেশি পরিচালক নিয়োগ দেওয়া যাবে না।

কারা স্বতন্ত্র পরিচালক হতে পারবেন, কী সুবিধা পাবেন– তা নির্ধারণ করে দেওয়া এক প্রজ্ঞাপনে বাংলাদেশ ব্যাংক বলেছে, ঋণখেলাপি কোনো ব্যক্তি পরিচালক হতে পারবেন না। ঋণখেলাপিমুক্ত হওয়ার পরের পাঁচ বছর স্বতন্ত্র পরিচালক হতে পারবেন না ইচ্ছাকৃত খেলাপিরা। তা ছাড়া স্নাতক ডিগ্রিধারী ও ন্যূনতম ১০ বছরের পেশাগত অভিজ্ঞতা এবং ন্যূনতম বয়স ৪৫ থেকে সর্বোচ্চ বয়স ৭৫ বছর হতে হবে। সক্ষমতা বিবেচনায় মাসে সম্মানী হবে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা। কোনো আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে স্বার্থ কিংবা দৃশ্যমান স্বার্থের বিষয়ে জড়িত কোনো ব্যক্তি স্বতন্ত্র পরিচালক হতে পারবেন না।

বুধবার (১৩ মার্চ) দেওয়া বাংলাদেশ ব্যাংকের এই প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয়েছে, স্বতন্ত্র পরিচালক নিয়োগে সরকারি, বেসরকারি বা স্বায়ত্তশাসিত বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ বা ব্যবসায় প্রশাসন, ব্যবস্থাপনা, আইন ও তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ে অভিজ্ঞ শিক্ষক, আইন পেশায় নিয়োজিত ব্যক্তি, হিসাব পেশায় নিয়োজিত হিসাববিজ্ঞান বিষয়ে পেশাদার ডিগ্রিধারী ব্যক্তি, অভিজ্ঞ ব্যাংকার, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ ও অর্থ বিভাগ, শিল্প মন্ত্রণালয় ও আইন মন্ত্রণালয়ের অভিজ্ঞ কর্মকর্তাদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বিবেচনা করা যাবে।

কোনো আর্থিক প্রতিষ্ঠান বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানসংশ্লিষ্ট ব্যক্তির সঙ্গে অতীত, বর্তমান ও ভবিষ্যৎ– কোনো প্রকৃত স্বার্থ কিংবা দৃশ্যমান স্বার্থের বিষয়ে জড়িত কোনো ব্যক্তি ওই আর্থিক প্রতিষ্ঠানের পরিচালক হতে পারবেন না। একই সঙ্গে স্বতন্ত্র পরিচালক হিসেবে নিয়োগের জন্য মনোনীত ব্যক্তির পরিবারের কোনো সদস্য সংশ্লিষ্ট আর্থিক প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ধারণ করতে পারবেন না এবং প্রতিষ্ঠানের কোনো লাভজনক পদে থাকতে পারবেন না।

এ ছাড়া মনোনীত ব্যক্তি ব্যাংক কোম্পানি, বীমা কোম্পানি বা এ ধরনের কোম্পানিগুলোর কোনো সাবসিডিয়ারি কোম্পানির পক্ষে পরিচালক থাকতে পারবেন না। ফৌজদারি কোনো অপরাধে দণ্ডিত কিংবা জাল-জালিয়াতি, আর্থিক অপরাধ বা অন্যবিধ অবৈধ কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকলে এ পদে নিয়োগ দেওয়া যাবে না। ইচ্ছাকৃত খেলাপি ঋণগ্রহীতা হিসেবে তালিকাভুক্ত ব্যক্তি ওই তালিকা থেকে অব্যাহতি পাওয়ার পাঁচ বছর না হওয়া পর্যন্ত কোনো আর্থিক প্রতিষ্ঠানের পরিচালক হওয়ার যোগ্য হবেন না।

স্বতন্ত্র পরিচালক নিজস্ব সক্ষমতা বিবেচনায় প্রতি মাসে স্থায়ী সম্মানী বাবদ সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা (প্রযোজ্য কর কর্তন সাপেক্ষে) পাবেন। পর্ষদ বা সহায়ক কমিটির প্রতিটি সভায় উপস্থিতি থাকলে সম্মানী হিসেবে পাবেন ১০ হাজার টাকা। স্বতন্ত্র পরিচালকের ফাইন্যান্স কোম্পানি আইন, ২০২৩ বা অন্য কোনো আইন বা বিধি পরিচালনা পর্ষদের লঙ্ঘন করা বিষয়ক যেকোনো তথ্য বাংলাদেশ ব্যাংককে জানাতে হবে। স্বতন্ত্র পরিচালকদের মধ্য থেকে ন্যূনতম একজন পরিচালক পর্ষদের নির্বাহী কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত হবেন এবং আমানতকারি ও সাধারণ শেয়ারহোল্ডারদের (পরিচালক ব্যতীত) স্বার্থ সংরক্ষণে সচেষ্ট থাকবেন।

Check Also

প্রতিমন্ত্রীর মর্যাদা পেলেন রাজশাহী ও খুলনার মেয়র

শেরপুর নিউজ ডেস্ক: রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান (লিটন) ও খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 + 4 =

Contact Us