Home / দেশের খবর / নাবিকদের ফিরিয়ে আনতে সরকার বদ্ধপরিকর

নাবিকদের ফিরিয়ে আনতে সরকার বদ্ধপরিকর

শেরপুর নিউজ ডেস্ক: নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, সোমালিয়ায় দস্যুদের হাতে জিম্মি বাংলাদেশি জাহাজ এমভি আবদুল্লাহর নাবিকদের সুস্থভাবে ফিরিয়ে আনতে সরকার বদ্ধপরিকর। নাবিকরা এখনো নিরাপদ ও সুস্থ আছেন। তবে জাহাজ এখন জলদস্যুদের নিয়ন্ত্রণে আছে।

গতকাল বুধবার সচিবালয়ে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ে ঈদুল ফিতর-২০২৪ উপলক্ষে ফেরি, স্টিমার, লঞ্চসহ জলযানগুলো সুষ্ঠুভাবে চলাচল এবং যাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে কর্মপন্থা নেওয়ার লক্ষ্যে বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা জানান।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘আমরা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, নৌবাহিনীসহ সবার সঙ্গে কথা বলেছি, সহযোগিতা চেয়েছি। আমাদের যে ২৩ জন নাবিক আছেন, তাঁদের জীবনের নিরাপত্তা আমাদের কাছে সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের চেষ্টা চলছে নাবিকদের রক্ষা করা এবং জাহাজটিকে উদ্ধার করা।

নাবিকরা এখনো নিরাপদে ও সুস্থ আছেন।


ভারতের সহযোগিতা চাওয়া হবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ভারতের সঙ্গে এরই মধ্যে যোগাযোগ হয়েছে। আমরা সহযোগিতা চেয়েছি।’

নাবিকদের হত্যার হুমকির বিষয়ে তথ্য নেই জানিয়ে তিনি বলেন, ‘যেকোনো মূল্যে নাবিকদের সুস্থ ও স্বাভাবিকভাবে ফেরত আনতে আমরা বদ্ধপরিকর। প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন, তাঁদের নিরাপদে ফেরত আনতে, যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

আমরা বসে নেই। এক মুহূর্ত বিক্ষিপ্ত না, আমরা সবাই সংযুক্ত আছি।’
প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের শিপিং ব্যবস্থা এখন বিশ্বের সঙ্গে জড়িয়ে গেছে। আমরা যখন এ বিষয়টি অবহিত হয়েছি, তখন তাত্ক্ষণিকভাবে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সহ আন্তর্জাতিক যতগুলো উইং নৌপরিবহনের কাজ করে, সবার সঙ্গে আমরা যোগাযোগ করেছি।’

তিনি বলেন, ‘নৌবাহিনীর আন্তর্জাতিক যোগাযোগ অনেক বেশি, আমরা তাদের সঙ্গেও যোগাযোগ করেছি।

আমাদের প্রথম গুরুত্ব হলো যারা নাবিক আছেন এবং সঙ্গে অন্য কেউ থাকলে তাঁদের জীবন নিরাপদ রাখা, নাবিকদের রক্ষা করা, উদ্ধার করা।’
জানতে চাইলে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘যেকোনো মূল্যে নাবিকদের নিরাপদে ফিরিয়ে আনতে আমরা বদ্ধপরিকর। জলদস্যুদের সঙ্গে থেকে কখন তাঁরা মুক্তি পাবেন সেটা বলা মুশকিল। প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন সুস্থভাবে তাঁদের ফিরিয়ে আনার সব ব্যবস্থা করার জন্য। আমরা কাজ করছি। তবে নির্দিষ্ট করে সময় বলা যাচ্ছে না।’

এদিকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, সোমালি জলদস্যুদের কবলে থাকা জাহাজের সঙ্গে এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে যোগাযোগ স্থাপন সম্ভব হয়নি। তৃতীয়পক্ষের মাধ্যমে যোগাযোগের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। নাবিকদের ছাড়াতে মুক্তিপণ দেওয়া হবে কি না, কৌশলগত কারণে তা এখনই প্রকাশ করা হবে না।

Check Also

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি যুবক নিহত

শেরপুর নিউজ ডেস্ক: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের গুলিতে হাসান (২৬) নামে এক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seven − three =

Contact Us