Home / পরিবেশ প্রকৃতি / দেশের ৬ বিভাগে বজ্রবৃষ্টির সঙ্গে হানা দেবে তীব্র শীত

দেশের ৬ বিভাগে বজ্রবৃষ্টির সঙ্গে হানা দেবে তীব্র শীত

শেরপুর নিউজ ডেস্ক: ‘মাঘের শীতে বাঘ পালায়’ প্রবাদটির জ্বলন্ত উদাহরণ যেন এবার পাওয়া যাচ্ছে। মাঘের শুরু থেকেই শৈত্যপ্রবাহের সঙ্গে হিম হাওয়ায় কাঁপছে দেশের বিস্তীর্ণ জনপদ। গত ক’দিন ধরে ভালোভাবে দেখাও মিলছে না সূর্যের। এরই মধ্যে দুঃসংবাদ জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর, সংস্থাটি বলছে, আগামী ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা, খুলনা, বরিশালসহ ৬ বিভাগে বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। শুধু তাই নয়, শীতের এমন দাপট চলতি জানুয়ারি মাসজুড়েই থাকতে পারে।

বুধবার (১৭ জানুয়ারি) সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তী তিন দিনের (৭২ ঘণ্টা) আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় খুলনা ও বরিশাল বিভাগের অনেক জায়গায়; ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের দু’এক জায়গায় বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া দেশের অন্যত্র অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে।
তবে রাত থেকে সকাল পর্যন্ত সারা দেশে মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে এবং এটি কোথাও কোথাও দুপুর পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে। পাশাপাশি কুয়াশার কারণে বিমান চলাচল, অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন এবং সড়ক যোগাযোগে সাময়িকভাবে বিঘ্ন ঘটতে পারে। এ ছাড়াও পাবনা, চুয়াডাঙ্গা, বরিশাল ও মৌলভীবাজার জেলাসমূহের ওপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে।

এই সময়ে সারা দেশে রাতের তাপমাত্রা ১-২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বৃদ্ধি পেতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে। সেই সঙ্গে কুয়াশার কারণে দেশের কোথাও কোথাও দিনে ঠান্ডা পরিস্থিতি বিরাজ করতে পারে।

এ বিষয়ে আবহাওয়াবিদ মো. তরিফুল নেওয়াজ কবির সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘আমরা আশা করছি, দেশের মধ্যাঞ্চল ও দক্ষিণাঞ্চলে মেঘ তৈরি হবে এবং বৃষ্টি হবে, এতে কুয়াশা কেটে যাবে। ঢাকা ও দক্ষিণাঞ্চলের পাশাপাশি রাজশাহী বিভাগের কিছু কিছু জেলায় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত বা শুক্রবার ভোররাত থেকে বৃষ্টি হতে পারে।’

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, উপ-মহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশের উত্তরপশ্চিমাঞ্চল পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। সেই সঙ্গে মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। এই অবস্থায় বুধবার ঢাকায় উত্তর বা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে বাতাসের গতি ছিল ঘণ্টায় ৮-১২ কিলোমিটার। পাশাপাশি সকাল ৬টায় রাজধানীতে বাতাসের আপেক্ষিক আর্দ্রতা ছিল ৯৬ শতাংশ। এছাড়া আগামী ৫ দিনে রাতের তাপমাত্রা কমতে পারে। এদিকে বুধবার দেশে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল বান্দরবানে ৯.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল কক্সবাজারের টেকনাফে ২৬.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

Check Also

এপ্রিলের মধ্যে ঘূর্ণিঝড়ের আভাস

শেরপুর নিউজ ডেস্ক: আগামী এপ্রিলের মধ্যে বঙ্গোপসাগরে দুই-থেকে তিনটি লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে। যার মধ্যে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 + 16 =

Contact Us