সর্বশেষ সংবাদ
Home / দেশের খবর / চলনবিলে ২০ কোটি টাকার মধু সংগ্রহের সম্ভাবনা

চলনবিলে ২০ কোটি টাকার মধু সংগ্রহের সম্ভাবনা

শেরপুর নিউজ ডেস্ক: রোপা আমন ধান কাটার পর চলনবিলের বিস্তীর্ণ মাঠে এখন মাঘী সরিষার হলুদ ফুলের সমারোহ। সরিষা ফুল থেকে মধু সংগ্রহের জন্য মৌচাষীরা সরিষা ক্ষেতে মৌবাক্স স্থাপন করতে শুরু করেছেন। সরিষার হলুদ ফুলে ফুলে নেচে মধু সংগ্রহে ব্যস্ত সময় পার করছে খামারিদের পোষা মৌমাছি। ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে মধু সংগ্রহের কাজ। চলতি মৌসুমে চলনবিল এলাকায় প্রায় পাঁচ হাজার মেট্রিক টন মধু উৎপাদনের সম্ভাবনা রয়েছে যার বাজার মূল্য প্রায় শত কোটি টাকা।

জানা গেছে, জমি থেকে বর্ষার পানি নেমে যাবার সাথে সাথে এ এলাকার কৃষকেরা উদ্বৃত্ত ফসল হিসেবে মাঘী সরিষার বীজ ছিটিয়ে দেন। কেউ কেউ চাষ করেও সরিষার বীজ বপন করেন। মাঘ মাসে সরিষা তুলে এসব জমিতে বোরো ধান চাষ করেন তারা। প্রতি বছর অগ্রহায়ন মাসের শেষ দিকে সরিষার ফুল ফুটতে শুরু করে। এসময় দেশের বিভিন্ন এলাকার মৌচাষীরা মধু সংগ্রহে চলনবিল এলাকায় আসতে শুরু করেন।

পৌষ-মাঘে চলনবিল এলাকার চাটমোহর, ভাঙ্গুড়া, ফরিদপুর, বড়াইগ্রাম, গুরুদাসপুর, তাড়াশ, সিংড়া, রায়গঞ্জ, উল্লাপাড়ার পশ্চিমাংশসহ এর আশপাশ এলাকার মাঠগুলো ছেয়ে যায় হলুদ সরিষা ফুলে। মৌসুমের শুরুতেই পাবনা, নাটোর, সিরাজগঞ্জের বিভিন্ন এলাকার খামারিদের পাশাপাশি সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, নড়াইল, গাজীপুর, রংপুর, দিনাজপুর, চাপাইনবাবগঞ্জ, পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, নীলফামারীসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে মৌচাষীরা মধু সংগ্রহের জন্য চলনবিল এলাকার মাঠ গুলোতে অস্থায়ী আবাস গড়ে তোলেন। খামারের মৌবাক্সগুলো তারা সরিষা খেতের পাশে স্থাপন করেন এবং কয়েকদিন পরপর মধু সংগ্রহ করেন।

উত্তরবঙ্গ মৌচাষী সমিতির সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম জানান, চলনবিলাঞ্চলে প্রায় দেড় লাখ হেক্টর জমিতে সরিষা আবাদ হয়। মৌচাষীরা ইতিমধ্যেই চলনবিল এলাকায় আসতে শুরু করেছেন। কিছুদিনের মধ্যেই আরও অনেক খামারি এ এলাকায় আসবেন। চলনবিল এলাকায় প্রতিবছর সাধারণত আটশ’ থেকে প্রায় এক হাজার মৌখামারি খামার স্থাপন করেন। প্রায় এক লাখ থেকে এক লাখ বিশ হাজার মৌবাক্স স্থাপন করেন তারা। কে কোথায় মৌবাক্স স্থাপন করবেন এটা দেখভাল করেন সমিতির দায়িত্বপ্রাপ্ত সদস্যরা। আবহাওয়া ভাল থাকলে চলতি মৌসুমে চার থেকে পাঁচ হাজার মেট্রিক টন মধু উৎপাদনের সম্ভাবনা রয়েছে।

Check Also

ভবনটিতে ‘ফায়ার এক্সিট’ ছিল না প্রধানমন্ত্রীর ক্ষোভ

শেরপুর নিউজ ডেস্ক: রাজধানীর বেইলি রোডের আগুন লাগা বাণিজ্যিক ভবনটিতে জরুরি অগ্নিনির্গমন পথ না থাকায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

18 + five =

Contact Us