সর্বশেষ সংবাদ
Home / বগুড়ার খবর / বগুড়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী জিয়াউল হক মোল্লার উপর হামলা

বগুড়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী জিয়াউল হক মোল্লার উপর হামলা

শেরপুর নিউজ ডেস্ক: বগুড়া-৪ (কাহালু ও নন্দীগ্রাম উপজেলা) আসনে সতন্ত্র সংসদ সদস্য প্রার্থী ডা. জিয়াউল হক মোল্লাকে বহনকারী গাড়িতে হামলার ঘটনা ঘটেছে। সোমবার বিকালে নির্বাচনী গণসংযগকালে কাহালু উপজেলার তিনদীঘি এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। এতে বিএনপির সাবেক এমপি ডা. জিয়াউল হক মোল্লাসহ অন্তত ৫ জন আহত হয়েছেন। আহতরা কাহালু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

এই হামলার ঘটনায় মৌখিক অভিযোগ দেওয়া হলেও সন্ধ্যায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোন মামলা করা হয়নি বলে জানিয়েছেন কাহালু থানার ওসি সেলিম রেজা। ওসি বলেন, ‘মৌখিক অভিযোগ পাওয়ার পরপরই পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। হামলাকারীদের পরিচয় এখনও পাওয়া যায়নি। তবে চেষ্টা চলছে।’ এদিকে ডা. জিয়াউল হক মোল্লার কর্মীদের অভিযোগ বিএনপি’র স্থানীয় একদল চিহ্নিত সন্ত্রাসী তাদের ওপর হামলা চালিয়েছে।

হামলা প্রসঙ্গে ডা. জিয়াউল হক মোল্লা নিজ বাসায় সাংবাদিকদের বলেন, ‘হামলাকারীরা আমাকে হত্যা করতে চেয়েছিল। বিশেষ রাগ এবং ক্ষোভ থেকে আমার ওপর হামলা চালানো হয়েছে। ওপরের নির্দেশে এটা হয়েছে। নির্দেশ বাস্তবায়ন করেছে এলাকার সাবেক সংসদ সদস্য মোশারফ হোসেন এবং তার অনুসারীরা। আমরা হামলাকারীদের চিনেছি। তাদের কয়েকজনের দলীয় পরিচয় (বিএনপি) থাকতে পারে।’

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকায় অবস্থানরত বগুড়া-৪ আসনের বিএনপি দলীয় সাবেক সংসদ সদস্য মোশারফ হোসেন বলেন, ‘ঘটনাটি আমি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জেনেছি। এটা সকলেই জানে যে বগুড়া-৪ আসন বিএনপি অধ্যুষিত এলাকা। আর ডা. জিয়াউল হক মোল্লা বিভিন্ন সময় বিএনপি এবং এর চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া, তারেক রহমানসহ দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে বিদ্বেষমূলক কথা বলছেন। এটা হয়তো বিএনপিভক্ত সাধারণ জনগণকে ক্ষুব্ধ করে তুলেছে। তিনি হয়তো জনরোষের শিকার হয়েছেন।’

বগুড়া-৪ আসনে বিএনপি দলীয় সাবেক সংসদ সদস্য ডা. জিয়াউল হক মোল্লা দীর্ঘদিন নিজ দলে উপেক্ষিত থাকার পর দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অংশগ্রহণের ঘোষণা দেন। তিনি গত ২৯ নভেম্বর তার মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। তারপর থেকেই তিনি তার কর্মীদের নিয়ে গ্রামে গ্রামে গণসংযোগ শুরু করেন।

ডা. জিয়াউল হক মোল্লার সঙ্গে থাকা মাসুদ রানা নামে একজন জানান, সোমবার দুপুরের একটি মাইক্রোবাস (ঢাকা মেট্রো-চ-৫৩-৪৭৭৭) নিয়ে তারা কাহালু উপজেলার কর্ণিপাড়ায় গণসংযোগ শুরু করেন। বিকেল পৌণে ৪টার দিকে তারা তিনদীঘি এলাকায় পৌঁছার পর স্থানীয় বিএনপি’র ২০/২৫জন নেতা-কর্মী এসএস পাইপ, লাঠি এবং রামদা নিয়ে তাদের মাইক্রোবাসের গতিরোধ করেন। এরপর তারা মাইক্রোবাসের জানালার কাঁচ ভেঙ্গে সাবেক সংসদ সদস্য ডা. জিয়াউল হক মোল্লার ওপর আঘাত হানার চেষ্টা করেন। এ সময় বাধা দিতে গেলে তিনি এবং সাবেক ছাত্রদল নেতা মহিউদ্দিন মোহন ও মাইক্রোবাসের ড্রাইভারসহ অন্তত ৪জন আহত হন। অন্যদিকে ভাঙা কাঁচের টুকরায় ডা. জিয়াউল হক মোল্লার চোখের নিচের অংশ কেটে যায়। পরে তারা দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন এবং চিকিৎসার জন্য কাহালু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন। তিনি বলেন, ‘আমরা থানায় গিয়ে মৌখিক অভিযোগ দিয়েছি।’

Check Also

বগুড়া-সিরাজগঞ্জ রেললাইন নির্মাণে ভূমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া শুরু

শেরপুর ডেস্ক: বগুড়া-সিরাজগঞ্জ রেলপথ নির্মাণের জন্য ভূমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। বগুড়া জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × one =

Contact Us