সর্বশেষ সংবাদ
Home / দেশের খবর / কারিগরি দক্ষতা বৃদ্ধিতে প্রশিক্ষণ দিতে আগ্রহী অস্ট্রেলীয় হাইকমিশনার

কারিগরি দক্ষতা বৃদ্ধিতে প্রশিক্ষণ দিতে আগ্রহী অস্ট্রেলীয় হাইকমিশনার

শেরপুর নিউজ ডেস্ক: অবকাঠামো নির্মাণে দক্ষ জনবল তৈরি ও নির্মাণশিল্পের সঙ্গে জড়িতদের প্রশিক্ষণ প্রদানের আগ্রহ ব্যক্ত করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত অস্ট্রেলিয়ার হাইকমিশনার (একটিং) নরদিয়া সিম্পসন। সোমবার গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীর সঙ্গে সচিবালয়ে সৌজন্য সাক্ষাতে তিনি এ আগ্রহের কথা জানান।

অস্ট্রেলিয়ার হাইকমিশনার বলেন, ভৌগলিকভাবে বাংলাদেশকে বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে অবকাঠামো নির্মাণ করতে হয়। এর সঙ্গে পরিবেশ সুরক্ষা ও ভূমির যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করার বিষয় সামনে রেখে কাজ করতে হয়। ফলে টেকসই অবকাঠামো উন্নয়ন ও সবার জন্য আবাসন নিশ্চিত করা যথেষ্ট চ্যালেঞ্জিং। এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় অস্ট্রেলিয়ার সরকার, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের কাজ করার সুযোগ রয়েছে। তিনি প্রয়োজনীয় দক্ষতা উন্নয়নের জন্য সংশ্লিষ্টদের সংক্ষিপ্ত মেয়াদে প্রশিক্ষণ প্রদানে আগ্রহ ব্যক্ত করেন।

এছাড়া পরিবেশ সুরক্ষার জন্য তিনি ভূগর্ভস্থ পানির পরিবর্তে ভূ-পৃষ্ঠস্থ পানির ব্যবহার বাড়ানোর ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের অনুরোধ জানান। মন্ত্রী পরিবেশের সুরক্ষা নিশ্চিত করে পরিকল্পিত উন্নয়নের স্বার্থে তার পরামর্শ ও প্রস্তাব সাদরে গ্রহণের আশ্বাস দেন।

একই দিন মন্ত্রণালয়ে তার সঙ্গে ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্যের নেতৃত্বে সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি) এবং টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে নাগরিক প্লাটফর্মের প্রতিনিধিদল সাক্ষাত করেন। সাক্ষাতকালে তারা দেশের আবাসন খাতে বিদ্যমান সমস্যা, সমস্যা উত্তরণে বিভিন্ন পন্থা সম্পর্কিত গবেষণালব্ধ সুপারিশ ও পরার্মশসমূহ সম্পর্কে আলোচনা করেন। আলাপকালে মন্ত্রী দেশের নগরাঞ্চলের পাশাপাশি গ্রামাঞ্চলের পরিকল্পিত উন্নয়ন সম্পর্কে তার গৃহীত পদক্ষেপ ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা জানান। এক্ষেত্রে সিপিডি ও এসডিজি বাস্তবায়নে নাগরিক প্লাটফর্মের সুপারিশ ও প্রস্তাবসমূহ তিনি সক্রিয় বিবেচনার আশ্বাস দেন।

মন্ত্রী বলেন, গ্রামাঞ্চলের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড শৃঙ্খলায় আনতে স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীকে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণের অনুরোধ জানিয়ে ইতোমধ্যে একটি আধাসরকারী পত্র প্রেরণ করা হয়েছে। এক্ষেত্রে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়, কৃষি মন্ত্রণালয় এবং পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনবিষয়ক মন্ত্রণালয় মিলে সমন্বিতভাবে কাজ করতে পারে বলে মন্ত্রী উল্লেখ করেন। সাক্ষাতকালে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব কাজী ওয়াছিউদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

 

Check Also

প্রকল্প বাস্তবায়ন ও ঋণ পরিশোধে বাংলাদেশের অবস্থান ভালো: বিশ্বব্যাংকের এমডি

শেরপুর ডেস্ক: প্রকল্প বাস্তবায়ন এবং ঋণ পরিশোধের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অবস্থান ভালো বলে জানিয়েছেন বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × four =

Contact Us