সর্বশেষ সংবাদ
Home / বগুড়ার খবর / ধুনট / ধুনটে একই পরিবারে ৫জন অজ্ঞান

ধুনটে একই পরিবারে ৫জন অজ্ঞান

এম.এ. রাশেদঃ বগুড়ার ধুনটে একই পরিবারে ৪ মাসের শিশু সন্তানসহ ৫ জন অজ্ঞান হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার সকালে তাদের উদ্ধার করে ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। পরিবারের অজ্ঞান সদস্যরা হলো, উপজেলার ভান্ডারবাড়ী ইউনিয়নের ভূতবাড়ী গ্রামের আফজাল হোসেনের ছেলে বদিউজ্জামান, বদিউজ্জামানের স্ত্রী ফুলেরা খাতুন, বদিউজ্জামানের ছেলে রাসেল মিয়া, রাসেল মিয়ার স্ত্রী রেখা খাতুন ও রাসেল মিয়ার ৪ মাসের শিশু কণ্যা রুবাইয়া খাতুন।

জানা যায়, প্রতিদিনের ন্যায় রাতের খাবার শেষ করে ঘুমিয়ে পড়ে বদিউজ্জামান ও রাসেলের পরিবার। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৬ টায় বদিউজ্জামানের ভাই ওসমান গনি অরফে নবুল হোসেনর স্ত্রী রেশমী আকতার তার সন্তানকে স্কুলে যাবার জন্য এগিয়ে দিয়ে আসার সময় বদিউজ্জামানের স্ত্রী ফলেরা খাতুন কে বাড়ীর আঙ্গীনায় তন্দ্রাচ্ছন্ন ভাবে দোলতে দেখে এগিয়ে যায়। পরে তাকে ঘরে শুয়ে রেখে পাশের ঘরে ঘুমিয়ে থাকা বদিউজ্জামানের ছেলে রাসেল ও তার স্ত্রী রেখাকে ডাকদিয়ে বাড়ি চলে যায়। বেলা বাড়ার সাথে সাথে কেউ ঘুম থেকে না ওঠায় প্রতিবেশীরা ডাকাডাকি করতে থাকে। সারা না পেয়ে তারা ঘরে ঢুকে দেখতে পায় বদিউজ্জামান ও তার স্ত্রী অচেতন অবস্থায় বিছানায় পড়ে আছে। ঘরের ভিতর মাচার নিচে সিঁধ কাটা দেখে স্থানীয়রা ধারনা করছেন চোর এসে সিঁধ কেটে তাদের অজ্ঞান করেছে। পরে তার ছেলে রাসেলকে ডাকতে থাকে প্রতিবেশিরা। রাসেলের সারা না পেয়ে ঘরের ভিতর রাসেল, তার স্ত্রী ও তার ৪ মাসের শিশু কণ্যা সন্তানকেও অচেতন দেখতে পায়। তাৎক্ষণিক মাথায় পানি ঢেলে ও গোসল করিয়ে দিয়ে শিশু কণ্যার জ্ঞান ফিরলেও পরিবারের অন্য ৪ সদস্যদের জ্ঞান ফেরেনি। তাদের দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এসে ভর্তি করা হয়েছে।

ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ ইসমাইল হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

Check Also

ধুনটে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

শেরপুর ডেস্কঃ বগুড়ার ধুনট উপজেলায় খালের পানি ডুবে মারিয়া খাতুন (১) নামে এক শিশু নিহত …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

nine − five =

Contact Us